ইমেইলের বদলে মেসেঞ্জার মার্কেটিং করুণ মেনিচ্যাটের মাধ্যমে।

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on skype
Share on linkedin
Share on email

ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং এর মাধ্যমে ই-কমার্স কে যেভাবে বড় করতে হয় তার বিস্তারিত আলোচনা করেছি আমার আগের পোস্টে।

ইমেইল মার্কেটিং এর পরিবর্ততে মেসেঞ্জার মার্কেটিং ম্যানিচ্যাটের মাধ্যমে কীভাবে করতে হয় তা আজকের পোস্টে আপনাদের শেখাবো।

কেনো ইমেইল মার্কেটিং নয়?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর চ্যানেল হিসেবে সারা বিশ্ব জুড়ে ইমেইল মার্কেটিং এর জনপ্রিয়তা এখনো অনেক বেশি। বিশেষ করে ই-কমার্স ব্যবসায়ের জন্য ইমেইল মার্কেটিং বড় একটি ভূমিকা পালন করে আসছে।

কিন্তু বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ইমেইল মার্কেটিং এর জনপ্রিয়তা এখন পর্যন্ত হয়ে উঠেনি।

জনপ্রিয়তা না হবার মুলে যে কয়টি কারণ রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হলো, ইমেইল ব্যবহার করতে না জানা।

বাংলাদেশে যেসকল সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর জনপ্রিয়তা রয়েছে তার সব গুলোতেই এখন ইমেইল ছাড়া অ্যাকাউন্ট ওপেন করা, লগইন করা সম্ভব।

সুতরাং, দৈনিন্দন জীবনে অফিসিয়াল কাজের বাইরে ইমেইল ব্যবহার হয় না বললেই চলে।

বড় ই-কমার্স গুলোর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট হতে প্রোডাক্ট ক্রয় করলে ইমেইলের প্রয়োজন হলেও, দেশের সকল ছোট এবং মাঝারি আকারের ই-কমার্স গুলোর ওয়েবসাইট নেই।

আর এসকল ই-কমার্স ব্যবসায়ের একমাত্র মার্কেটিং চ্যানেল ফেসবুক হবার কারণে কম খরচে, স্বল্প সময়ের মধ্যে কাস্টমারের কাছে পৌঁছাতে মেসেঞ্জার মার্কেটিং এর উপর আমাদের এখনই জোর দিতে হবে।

ফিনানশিয়াল দিক হতে বিবেচনা করলে ইমেইল মার্কেটিং এর জন্য প্রতিমাসে অনেক বাজেট প্রয়োজন হয় যা মেসেঞ্জার মার্কেটিং এর তুলনায় ৪ গুন বেশি।

ManyChat কী?

মেনিচ্যাট ফেইসবুকের একটি থার্ড পার্টি সফটওয়্যার যা ফেইসবুকের রুলস মেনে চলে ফেইসবুকে মেসেঞ্জার মার্কেটিং করতে সাহায্য করে। পেইজের ফেইসবুক থেকে ডাটা সংগ্রহ করে সে ডাটা গুলো কে ম্যানিচ্যাটের মাধ্যমে ফিল্টার করে পার্সোনালাইজড সার্ভিস প্রদান করা যায়।

আমাদের কোম্পানি, ডিজাইন কারিগর এবং সকল ক্লায়েন্টেদের ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং এর সল্যুশন হিসেবে মেনিচ্যাট আমাদের অন্যতম একটু টুলস বলা যায়।

কারণ, ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং করতে হলে আমাদের একটি টুলস প্রয়োজন যেখানে ফেসবুক হতে পাওয়া ডাটা গুলো জমা করা এবং প্ল্যানিং

মেনিচ্যাটের যেসব অপশন গুলো রয়েছে তাদের মধ্যে Subscribe, Broadcast এবং Live Chat অপশনটি আমার খুবই প্রিয়।

ManyChat ব্যবহার করার সুবিধা

ইমেইল মার্কেটিং এর বড় সুবিধা হলো, এর সাবসাক্রাইব হবার অপশন। আপনার ইমেইল আইডি আপনি কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট নিউজ, ডিসকাউন্ট অফার হতে শুরু করে সকল ইনফরমেশন আপনার ইমেইলের ইনবক্সে পাচ্ছেন।

ইমেইলের মতন ম্যানিচ্যাটেও এমন ‘সাবস্ক্রাইব’ হবার অপশন রয়েছে। যেসকল কাস্টমার আপনার পেইজের সাবস্ক্রাইব হবে তাদের সবাইকে ইমেইলের মতন একসাথে ম্যাসেজ পাঠানো যাবে।

আমাদের একজন ক্লায়েন্ট মেনিচ্যাটের মাধ্যমে তার পেইজের জন্য ১০,৪৬৭ জন সাবস্ক্রাইবার যুক্ত করতে পেরেছেন।


শুধু ম্যাসেজ পাঠানোতেই শেষ নয়, মেনিচ্যাটের মাধ্যমে পেইজের জন্য চ্যাটবট তৈরি করা যায়। চ্যাটবট তৈরি করতে যেসকল অপশন আমরা মেনিচ্যাটে পাবো, যা এখন পর্যন্ত ফেসবুক দেইনি।

মেনিচ্যাটের ফ্রি এবং পেইড দুই ভার্সনই রয়েছে। আমাদের জন্য ফ্রি ভার্সনই যথেষ্ট। তবে কোম্পানি বড় হবার সাথে সাথে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়লে পেইড ভার্সন ব্যবহার করা যেতে পারে।

ফেসবুকের রুলস মেনে না চলে পেইজের সকল কে গনহারে ম্যাসেজ পাঠালে সারা জীবনের জন্য পেইজ ব্যান হবার সম্ভাবনা ১০০%

মেনিচ্যাট সেটআপ করার নিয়ম

এখন আমরা দেখবো কীভাবে পেইজে মেনিচ্যাট কানেক্ট করতে হয়। এবং মেনিচ্যাট সেটআপ করা ইমেইল মার্কেটিং এর চেয়ে অনেক অনেক সহজ।

আমার সাথে আপনিও মেনিচ্যাট সেটআপ করে নিন।

আপনার বিজনেস পেইজের জন্য মেনিচ্যাট সেটআপ করতে হলেঃ

প্রথমে ভিজিট করুণঃ www.manychat.com । এরপর ‘Get Started’ বাটনে ক্লিক করুণ।

নিচের টিকবক্সে টিক দিয়ে ফেইসবুক আইডি দিয়ে সাইন ইন করে নিন।

এই হচ্ছে আপনার মেনিচ্যাটের ড্যাশবোর্ড। অনেক গুলোঅপশন দেখে ভয়ের কিছু নেই। আমাকে ফলো করুণ। ড্যাশবোর্ডে এলে সর্ব প্রথম পেইজটি কানেক্ট করে নিন।


মেনিচ্যাট সেটআপ হয়ে গেল। কী সহজ না?

মেনিচ্যাট সেটআপ হবার পর, আপনার পেইজের ‘Send Message’ বাটনে মাউস রাখলে ‘Test Button’ নামে একটি অপশন পাবেন। ক্লিক করুণ। আশা করছি এখন হতে যেই আপনার পেইজে নক করতে আসবে তিনিই এমন কিছু দেখতে পাবেন।

মেসেঞ্জার মার্কেটিং

ম্যানিচ্যাট কাস্টমাইজেশন

আমরা মেনিচ্যাটের ফ্রি ভার্সন ব্যবহার করছি বলে অবশ্যই আমাদের কিছু লিমিটেশন থাকবে। তবে ফ্রি ভার্সনে যেসব টুলস রয়েছে তার সব গুলো অপশনই আমরা ব্যবহার করবো।

মেনিচ্যাট কাস্টমাইজ করার আগে টুলস গুলোর সাথে পরিচিত হয়ে নেইঃ

  1. Audience
    আমাদের সকল সাবস্ক্রাইবারদের কে Audience ট্যাবে পাবো। এখানে তাদের ফেইসবুক প্রোফাইল পিকচার, ফেইসবুক নাম, জেন্ডার এবং কখন সাবস্ক্রাইব হয়েছে জানতে পারবো।

    সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বড় হলে আমাদের ট্যাগের সংখ্যাও বাড়বে। তখন Audience ট্যাবের ফিল্টার অপশনের মাধ্যমে আরো ডিটেইলস ভাবে সাবস্ক্রাইবারদের দেখা যাবে।

  2. Live Chat
    মেনিচ্যাটের ‘লাইভ চ্যাট অপশনটি আমার খুবই প্রিয়। এখান হতে পেইজের কাস্টমারদের সাথে লাইভ চ্যাট করা যায়।

    ফেইসবুক পেইজের ইনবক্সের মতন এখানেও সব অপশন রয়েছে। তবে অনেক সুন্দর ভাবে গোছানো। এছাড়াও এক্সট্রা কিছু অপশন যুক্ত আছে যা ভবিষ্যতে আমাদের সব সময়েই কাজে লাগবে।

  3. Growth Tools
    এই পুরো অপশনটি এই মুহূর্তে আমাদের প্রয়োজন নেই। কোম্পানির ওয়েবসাইট হলে এই টুলসের ব্যবহার করতেই হবে। নো চয়েজ।

  4. Broadcasting
    প্রোডাক্ট এনাউনসমেন্ট, নিউ অফার, গ্রেটিংস ম্যাসেজ, কিংবা গুরুত্বপূর্ণ কোন নিউজ সকল সাবস্ক্রাইবারদের সাথে শেয়ার করতে চাইলে এই টুলস ব্যবহার করতে হবে।

    এখান হতেই অ্যানালিটিক্স দেখতে পারবো- কতজনের কাছে ম্যাসেজ গিয়েছে, কতজন ওপেন করেছে, কতজন লিংক অথবা বাটনে ক্লিক করেছে তার ইনফরমেশন দেখা সম্ভব। ওয়াও…

  5. Automation
    Automation এর মধ্যে আরো ৬ টি অপশন রয়েছে। যার মধ্যে মাত্র ২ টি অপশন আমরা ব্যবহার করবো।

    Main Menu
    Main Menu কী এবং কীভাবে সেটআপ করতে হয় তার জন্য মেনিচ্যাট হতেই একটি ছোট ভিডিও টিউটোরিয়ালের লিংক যুক্ত করে দিলাম। ভিডিওটি দেখে নিজের Main Menu সেটআপ করা শেষে আমাকে আবার ফলো করুণ।

Welcome Message
কোন কাস্টমার পেইজের ইনবক্সে নক করলে তাকে ‘Get Started’ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

Get Started বাটনে ক্লিক করার পর যে ম্যাসেজ গুলো আসবে তাকেই বলে ওয়েলকাম ম্যাসেজ। এবং মেনিচ্যাট সেটআপ দেয়ার পর ওয়েলকাম ম্যাসেজ ঠিক করা খুবই খুবই জরুরী।

কারণ, ওয়েলকাম ম্যাসেজের মাধ্যমেই কোম্পানির ব্র্যান্ডিং এবং কোম্পানির কোয়ালিটি দেখানোর সুযোগ রয়েছে।

ওয়েলকাম ম্যাসেজ সেটআপ করা একটু সময় সাপেক্ষ ব্যাপার, কারণ, আপনি কতটুকু ইজি এবং কম্পলিকেটেড করে দেখাতে চাচ্ছেন তার উপর নির্ভর করছে।

ওয়েলকাম ম্যাসেজ কীভাবে সেটআপ করতে হয় তার টিউটোরিয়াল লিংক দিয়ে দিলামঃ

6. Flows
কোম্পানির জন্য আমরা যেসকল অটোমেটেড চ্যাটবট ইউজ করবো তার সব গুলো এখানে জমা থাকবে।

এই মুহূর্তে Flows গুলো নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। কারণ, আপনার Main Menu এবং Welcome Message রেডি করা হয়ে গেলে ইতিমধ্যে আপনি কিছু Flow এর কাজ শিখে গিয়েছেন।

তবুও একটি টিউটোরিয়াল লিংক দিয়ে রাখলাম।

7. Settings
সেটিংস অপশনের মধ্যে আমাদের শুধু একটি অপশন কাস্টমাইজ করতেই হবে তা হলো Greeting Text.

এটা হচ্ছে গ্রেটিং টেক্সট। আপনার কোম্পানির জন্য ছোট করে একটি গ্রেটিং টেক্সট লিখে ফেলুন এখানেঃ

তো হয়ে গেলো মেনিচ্যাট কাস্টমাইজেশন করা।

আপনার কোম্পানির গঠন, ব্র্যান্ডিং এর উপর ভিত্তি করে পছন্দ মতন মেনিচ্যাট কাস্টমাইজেশন করে নিন।

মেনিচ্যাট দিয়ে কীভাবে কাস্টমাইজেশন করা যায় তার ছোট একটি উদাহরণ আমি আপনাদের জন্য তৈরি করেছি। দেখে নিন, কীভাবে আপনি আপনার ই-কমার্সের জন্য ছোট করে চ্যাটবট তৈরি করবেন।


এছাড়াও আমার আজকের পোস্টে যেসব অপশন নিয়ে কথা বলা হয়নি কিংবা সবগুলো অপশন নিয়ে আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে মেনিচ্যাটের অফিসিয়াল ইউটুব চ্যানেলের কোন বিকল্প নেই।

 এরপরের ধাপ কি হবে?

ম্যানিচ্যাট সেটআপের পরের প্ল্যানিং এবং সে অনুযায়ী কাজের মাধ্যমে আপনি সুবিধা গুলো পাবেন।

ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং এর মাদ্ধম্নে কীভাবে আপনার ই-কমার্স বড় করতে পারেন সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি আমার আগের পোস্টে।

সময় থাকলে পড়ে নিতে পারেনঃ ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং যেভাবে ই-কমার্স কে বড় করতে পারে।

আশা করছি, আজকের পর হতেই আপনি আপনার ই-কমার্সের জন্য ম্যানিচ্যাটের মাধ্যমে ফেসবুক মেসেঞ্জার মার্কেটিং করতে পারবেন একদম ফ্রিতে।

Table of Contents

Subscribe to our newsletter

Promise we won’t spam you or used any marketing promotion form our end.